বেতন কমিশন নিয়ে রাজ্য সরকারের বিরুদ্ধে উঠল নজিরবিহীন অভিযোগ!!

নজরবন্দি ব্যুরোঃ নজিরবিহীন অভিযোগ উঠল রাজ্য সরকারের বিরুদ্ধে। অভিযুক্ত স্বয়ং মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তাঁর বিরুদ্ধে অভিযোগ তুললেন কনফেডারেশন অব স্টেট গভঃ এমপ্লয়িজ (INTUC)র সাধারণ সম্পাদক মলয় মুখোপাধ্যায়। তিনি অভিযোগ তুলেছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সরকার রাজ্যের সরকারি কর্মীদের টাকা তছরুপ করছে। বলা হচ্ছে রাজ্য সরকারি কর্মীদের ষষ্ঠ বেতন কমিশন দিতে রাজ্যের ১০ হাজার কোটি টাকা খরচ হবে কিন্তু আসল ব্যাপারটা তা নয়!
বরং রাজ্যের উলটে ৫ হাজার কোটি টাকা। ঠিক কি বলছেন মলয় মুখোপাধ্যায়? হুবহু রইল আপনাদের জন্যে।
" গত(১৩|০৯|১৯) নেতাজী ইনডোরে মাননীয়া বেতন কমিশনের একটি অস্পষ্ট রিপোর্ট পড়ে শুনিয়েছেন। সেখানে তিনি বলেছেন, নয়া বেতন কমিশন লাগু করতে, সরকারের ১০ হাজার কোটির কিছু বেশি টাকা খরচ হবে। অর্থাত খরচের হিসবটা তিনি আগেই কষে নিয়ে এসেছেন। কিন্তু আমরা কনফেডারেশন বলি, বেতন কমিশন দিতে সরকারের একটি পয়সাও আপাতত খরচ হবে না বরং ওই ১০ হাজার কোটি খরচ হওয়ার পরেও সরকারের পাঁচ হাজার কোটি টাকারও বেশি লাভ থাকবে।
ব্যাপারটা শুনে অবাক হলেন তো? হওয়ারই কথা। নিচের পরিসংখ্যান টি যাচাই করে নেবেন বন্ধুরা। এবংএই তথ্য সর্বত্র ছড়িয়ে দেবেন। সরকারের ভাওতাবাজী মুখবুজে সহ্যকরলে আমার ক্ষতি,আপনার ক্ষতি আগামী প্রজন্মের ক্ষতি। আপনারা এই সত্য উদঘাটনের জন্য ফিনান্সের ওয়েব সাইডে গিয়ে বাজেট প্রিভিউ'র বাজেট পাবলিকেশন নং 9 খুলুন। এবার দেখুন Budget at a glance (Recept) কি বলা আছে। একটা উদাহরণ সহযোগে আপনাদের কে বুঝিয়ে দিচ্ছি। 2012-13 তে রাজ্য কর্মচারীদের বেতন ও পেনশন খাতে সরকার 40,766.95 কোটি টাকা বরাদ্দ করেছিলেন। এর অর্থ হল ওই টাকা সরকারের দেওয়ার ক্ষমতা ছিল।কিন্তু সরকার দেয়নি।কারণ,ওই বছর সরকারের Revised Budget খরচ হয়েছিল 39,786.87 কোটি এবং Actul খরচ হয়েছিল 39,379.06 কোটি টাকা। অর্থাৎ ওই 12-13 ফিনানসিয়াল ইয়ারে সরকারের লাভ 1,387.89 কোটি টাকা। অর্থাত সরকারের কোষাগারে জমা আছে।
এবার লক্ষ্য করুন: 2012-13 থেকে 2017-18 মাত্র ৬ বছরে আমাদের না দেওয়ার টাকার পরিমান 15,129.17 কোটি টাকা। সরকারের এহেন সঞ্চয় কিভাবে হল? ১| নিদিষ্ট সময়ে ডিএ না দেওয়া। ২| নিদিষ্ট সময়ে প্রমোশন না দেওয়া। ৩| স্থায়ীপদে কর্মী নিয়োগ না করা। তাহলে আমরা কি বলতে পারিনা? সরকার আমাদের বছরের পর বছর বঞ্চিত করে, আমাদের টাকা মেরে সেই সঞ্চিত অর্থ দিয়েই বেতন কমিশন লাগু করছেন? এরপরও মেরে দেওয়া পাঁচ হাজার কোটি টাকা সরকারের কোষাগারে জমা হয়ে থাকবে। বন্ধুরা এহেন বঞ্চনা আমরা কি মুখ বুঝে শুধু সহ্য করব? না করব না। আপনারা সকলে আগামী দিনে বড় আন্দোলনে আমাদের সাথে থাকুন। আমাদের জয় হবেই হবে।"
Loading...

No comments

Theme images by caracterdesign. Powered by Blogger.