Header Ads

আদালতের নির্দেশ অবমাননা! রাজ্য সরকারের বিরুদ্ধে মামলা করছেন সরকারি কর্মীরা।

নজরবন্দি ব্যুরোঃ ডিএ-র দাবিতে আদালতে মামলা করা রাজ্য সরকারি কর্মীদের জয় হয়েছে বেশ কিছুদিন আগে। দেশের ক্রেতা মূল্যসূচক বা সিপিআই এর উপর ভিত্তি করে এ রাজ্যের সরকারি কর্মীদের মহার্ঘ ভাতা দিতে নির্দেশ দিয়েছিল স্টেট অ্যাডমিনিস্ট্রেটিভ ট্রাইবুনাল বকলমে স্যাট। স্যাট রায়ে জানিয়েছিল, কত ডিএ বকেয়া, নির্ধারণ করতে হবে ৩ মাসের মধ্যে আর দিতে হবে ৬ মাসের মধ্যে! রাজ্য সরকার দেরি করছিল বলে কনফেডারেশন অফ স্টেট গভর্নমেন্ট এমপ্লয়িজের পক্ষ থেকে নবান্নে মুখ্য সচিব মলয় দে ও অর্থ সচিবের কাছে রাজ্য সরকারি কর্মীদের মহার্ঘ ভাতা মামলায় স্টেট অ্যাডমিনিস্ট্রেটিভ ট্রাইব্যুনালের রায়ের সার্টিফাইড কপি জমা দেন মামলাকারী তথা কনফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক মলয় মুখোপাধ্যায়।
মলয় মুখোপাধ্যায় তখন জানান রাজ্য সরকার এতটাই উদাসীন ২৬শে জুলাই থেকে এতদিন হয়ে যাওয়ার পরেও রায়ের সার্টিফায়েড কপিটাই তোলেনি, তাই বাধ্য হয়ে আমরাই তা জমা করলাম।
বর্তমান পরিস্থিতি হল স্যাটের দেওয়া সেই তিন মাসের সময়সীমা শেষ হচ্ছে আগামীকাল। এখনও পর্যন্ত রাজ্য সরকারের তরফে তেমনভাবে কোন সদর্থক পদক্ষেপ চোখে পড়েনি মহার্ঘ্য ভাতা দেওয়ার ব্যাপারে! সাথে কানাঘুষো শোনা যাচ্ছে   র রাজ্যসরকার স্যাটের রায়ের বিরুদ্ধে উচ্চ আদালত অর্থাৎ সুপ্রিম কোর্টে যাওয়ার কথা ভাবছে।
সরকারি কর্মচারীদের ক্ষোভ "ডিএ দেওয়ার টাকা নেই কিন্তু জনগনের করের টাকা দিয়ে ডিএ মামলায় রায়ের বিরুদ্ধে সুপ্রিম কোর্টে মামলা লড়তে পারে রাজ্য!" এই প্রসঙ্গে মলয় মুখোপাধ্যায় বলেন, "রাজ্য সুপ্রিম কোর্টে গেলেও হার অবশ্যম্ভাবী। জয় আমাদেরই হবে।"
কনফেডারেশন অব স্টেট গভমেন্ট এমপ্লয়িজের সাধারণ সম্পাদক মলয় মুখোপাধ্যায় আরও জানিয়েছেন, ‘‘স্যাটে এখন পুজোর ছুটি চলছে৷ খুলবে আগামী বৃহস্পতিবার৷ ওই দিন অবমাননা মামলা দায়ের করা হবে৷ স্কুটিনি পরবর্তী মামলাটি পয়লা নভেম্বর মহামান্য ২ বিচারপতি মাননীয় রঞ্জিত কুমার বাগ ও সুবেশ কুমার দাস মহাশয়ের বেঞ্চে ওঠার সম্ভবনা৷ তাঁদের নির্দেশ অনুযায়ী পরবর্তী পদক্ষেপ আমরা জানতে পারব৷’’ 
Loading...

No comments

Theme images by enjoynz. Powered by Blogger.