"জয় শ্রীরাম" না বলার অজুহাতে গণপিটুনির ভিডিও ভাইরাল।


নজরবন্দি ব্যুরো: অপরাধ দুই যুবকের "জয় শ্রীরাম" না বলা। এর জেরে রাস্তায় ফেলে প্রকাশ্য দিনের আলোয় চললো গণপিটুনি। গণপিটুনির গোটা ঘটনাটির ভিডিও এই মূহুর্তে ভাইরাল হয়ে উঠেছে সোশ্যাল মিডিয়াতে। ঘটনাস্থলের উল্লেখ না থাকলেও ৫৭ সেকেন্ডের গণপিটুনির ভাইরাল এই ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে পুলিশ অচৈতন্য রক্তাক্ত অবস্থায় এক যুবককে উদ্ধার করে নিয়ে যাচ্ছে। আর অপর এক যুবক গেরুয়া তাণ্ডবকারিদের হাতে প্রহৃত হয়ে চলেছে। আক্রান্ত ব্যক্তি রক্তাক্ত অবস্থায় গণপিটুনির শিকার হচ্ছে পুলিশের উপস্থিতিতে।  অঞ্জাত পরিচয়ের তিন যুবক অপর এক যুবককে আক্রান্ত করেছে জয় শ্রীরাম না বলার কারণে। ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে প্রথমে এক অঞ্জাত পরিচয়ের হামলাকারি ব্যক্তি আক্রান্ত যুবককে মাঝ রাস্তায় মাটিতে ফেলে আক্রান্ত যুবকের পেটের ওপর বসে লাগাতার কিল, চড়, ঘুসি মেরে চলেছে।
আক্রান্ত যুবকের চুলের মুঠি ধরে কংক্রিটের রাস্তায় মাথা ঠেতলে দিচ্ছে। আর এক অঞ্জাত পরিচয়ের হামলাকারি আক্রান্ত যুবকের মুখে, বুকে লাঠি মেরে চলেছে। আক্রান্ত যুবকের ওপর প্রথম হামলাকারি যুবক শারিরীক এবং মানসিক অত্যাচার করার পর অত্যন্ত গৌরবের সঙ্গে বীরত্বর চরমতর আস্ফালন ছড়িয়ে "জয় শ্রীরাম" ধ্বনি দিয়ে চলেছে। অঞ্জাত পরিচয়ের হামলাকারি তৃতীয় ব্যক্তি আক্রান্ত যুবকের বুকের ওপর দুবার লাফিয়ে নৃশংস অত্যাচার চালিয়ে যাচ্ছে। ভাইরাল হওয়া এই ভিডিওতে দেখা গিয়েছে গোটা গণপিটুনির ঘটনার সময়ে পুলিশের অসহায়তা, অতি নিষ্ক্রিয়তা। গণপিটুনিতে আক্রান্ত দুই ব্যক্তির শারিরীক অবস্থা আশঙ্কাজনক ভাইরাল ভিডিওতে স্পষ্ট। কয়েকমাস আগে "জয় শ্রীরাম" না বলার অজুহাতে তবরেজ আনসারি নামে এক যুবককে গণপিটুনির শিকার হয়ে খুন হতে হয়েছিল। তবরেজ গণপিটুনি কান্ডে ১১জন অভিযুক্ত ঝাড়খন্ড পুলিশের হাতে ধরা পড়লেও তবরেজ আনসারির 'মৃত্যুর কারণ' ঘিরে প্রশাসনিক স্তরে তৈরি হয়েছে বিভ্রান্তি। ফের একবার দুই যুবকের ওপর গণপিটুনির ঘটনা সামনে চলে এলো। গণপিটুনিতে আক্রান্ত দুই যুবকের অপরাধীরা কি পুলিশের হাতে ধরা পড়বে, এই প্রশ্নটাই এখন মূখ্য হয়ে উঠেছে।
Loading...

No comments

Theme images by caracterdesign. Powered by Blogger.