Header Ads

ইডেনের শিশির চ্যালেঞ্জিং হতে পারে বোলারদের কাছে; বলছেন সচিন।

নজরবন্দি ব্যুরো: ২২ নভেম্বর ইডেন গার্ডেন্সে দিন রাতের টেস্ট হতে চলেছে। বিরাট কোহলির টিম ইন্ডিয়ার অভিষেক হতে চলেছে দিন রাতের টেস্টে। গোলাপি বলে খেলা হবে। ইডেনের দিন রাতের টেস্টে শিশির চ্যালেঞ্জিং হতে পারে এমনটাই প্রতিক্রিয়ায় বলেছেন কিংবদন্তি ক্রিকেটার সচিন তেন্ডুলকর। সচিনের ভাষায়, শিশিরের বিষয়টি ঠিকঠাক সামলে দিতে পারলে ইডেন টেস্ট দেশের ক্রিকেটে এক উল্লেখযোগ্য পদক্ষেপ হতে চলেছে। মাস্টার ব্লাস্টার দিন রাতের ম্যাচ নিয়ে বলেছেন, যতক্ষণ পর্যন্ত না শিশির কোন সমস্যা করে, দিন রাতের টেস্ট ভালো পদক্ষেপ।
যদি শিশির সমস্যা করে, তাহলে সিমার এবং স্পিনারদের ক্ষেত্রে চ্যালেঞ্জিং হয়ে উঠবে। কারণ বল ভিজে গেলে সিমাররা সাহায্য পাবে না। স্পিনাররাও পাবে না। সেই দিক দিয়ে দেখলে বোলারদের কঠিন পরীক্ষার মুখে পড়তে হতে পারে। শিশির যদি না থাকে, তাহলে খুব ভালো পদক্ষেপ হবে। ক্রিকেটের ভগবান সচিন ইডেন গার্ডেন্সে শিশিরের আশঙ্কা প্রসঙ্গে আরোও বলেছেন, আমার ধারণা শিশির বড় ভূমিকা নেবে। শিশির কতটা পড়ছে আমাদের দেখতে হবে। শিশিরই নির্ধারন করবে প্রতিযোগিতা কতটা হবে দুদলের মধ্যে। শিশির ভূমিকা নেবে এটা হওয়া উচিত নয়। গোলাপি টেস্টের ভবিষ্যৎ নিয়ে সচিন স্পষ্ট করে কিছু বলতে না পারলেও বোর্ড সভাপতি সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়ের প্রশংসা শোনা গিয়েছে। সচিন বলেছেন, দুভাবে বিষয়টি দেখা যেতে পারে। দর্শকের দৃষ্টিভঙ্গিতে।
মানুষ কাজ সেরে দিন রাতের টেস্ট দেখতে পারবে। এই দিক দিয়ে দেখলে খুব ভালো ধারণা। বিকেলে মাঠে এসে ম্যাচ উপভোগ করতে পারবে। আবার খুব একটা খারাপ হবে না খেলোয়াড়দের দৃষ্টিভঙ্গি থেকে। দেখে নেওয়া যাবে লাল বল আর গোলাপি বলের মধ্যে পার্থক্য ঠিক কোন জায়গায়। পুরো বিষয়টি মানসিক, একটা গোলাপি বল আমার দিকে আসছে। ইডেন টেস্টের আগে সচিন ভারতীয় ব্যাটসম্যানদের পরামর্শ দিয়ে বলেছেন, নেটে ব্যাটসম্যানদের বিভিন্ন রকম বলে প্রস্তুতি নিতে হবে। একটা নতুন গোলাপি বল। একটা ২০ ওভারের গোলাপি বল, একটা ৫০ ওভারের গোলাপি বল, শেষে ৮০ ওভারের গোলাপি বল। এরপর দেখতে হবে ভিন্ন সময়ের বলগুলোর আচরণ। সঙ্গে সচিন যোগ করেছে দলীপ ট্রফিতে ক্রিকেটারেরা গোলাপি বলে খেলেছে। তাই ভারতীয় ব্যাটসম্যানরা দলীপ ট্রফি খেলা ক্রিকেটারদের কাছ থেকে কথা বলে এই বলের আচরণ নিয়ে অনেক কিছু জানা যেতে পারে।
Loading...

No comments

Theme images by enjoynz. Powered by Blogger.