Header Ads

ফসল পোড়ানোর জের দিল্লিতে 'সিভিয়ার প্লাস', জারি জরুরী অবস্থা।

নজরবন্দি ব্যুরো: পাঞ্জাব আর হরিয়ানায় ফসলের গোড়া পুড়িয়ে দিচ্ছে কৃষকেরা। আর ওই ধোয়ার কুণ্ডলী হাওয়ায় গা ভাসিয়ে ঢুকে পড়েছে দেশের রাজধানী দিল্লিতে। সঙ্গে দিপাবলীতে দিল্লিবাসীর যথেচ্ছাচার বাজি পোড়ানো। সব মিলিয়ে দিল্লির আকাশ বাতাস বিষাক্ত গ্যাসে ছেয়ে রয়েছে। গোটা দিল্লি মেট্রো নগরী জুড়ে দমবন্ধকর অবস্থা। দূষণের এই অবস্থাকেই বলা হয়ে থাকে 'সিভিয়ার প্লাস'। তাই দিল্লি জুড়ে জারি হয়েছে জনস্বাস্থ্য সংক্রান্ত জরুরী অবস্থা।
আগামী ৫ নভেম্বর পর্যন্ত এই জরুরী অবস্থা জারি থাকবে। বাতাসের গুণমান সূচক ০ থেকে ৫০ মধ্যে থাকলে স্বাস্থ্যর পক্ষে অনুকূল। এই মুহুর্তে দিল্লিতে এই সূচক ৫০০ ছাড়িয়ে গিয়েছে। এই জরুরী অবস্থার মাঝে ৩ নভেম্বর, রবিবার দিল্লির ফিরোজ শাহ কোটলাতে ভারত বনাম বাংলাদেশ টি ২০ সিরিজের প্রথম ম্যাচ হতে চলেছে। দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়াল দিল্লির দূষণের জন্য দায়ি করেছেন হরিয়ানার মুখ্যমন্ত্রী মনোহরলাল খট্টর এবং পাঞ্জাবের মুখ্যমন্ত্রী ক্যাপ্টেন অমরিন্দর সিংহকে।
কেজরিওয়ালের অভিযোগ, ইচ্ছাকৃতভাবে পড়শি দুই রাজ্য সরকার কৃষকদের ফসলের গোড়া পোড়াতে বাধ্য করাচ্ছে। তাই গোটা দিল্লি হয়ে উঠেছে ধোঁয়ায় ঢাকা 'গ্যাস চেম্বার'। দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী জানিয়েছেন, বিষাক্ত বাতাস থেকে পড়ুয়াদের বাঁচাতে সরকারি এবং বেসরকারি বিদ্যালয়ে ৫০ লক্ষ মাস্ক বিতরণ করা হয়েছে। সঙ্গে ৫ নভেম্বর পর্যন্ত দিল্লির সমস্ত স্কুল বন্ধ রাখার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। কেজরিওয়াল পড়ুয়াদের কাছে আবেদন রেখেছে, দুই পড়শি রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীদের চিঠি লিখতে নিজেদের রাজ্যে কৃষকদের ফসল পোড়ানোর বিষয়টিকে বন্ধ করার জন্য। সঙ্গে সরকারি নির্দেশিকা জারি হয়েছে শীতকালে দিল্লিতে বাজি পোড়ানো যাবে না।
Loading...

No comments

Theme images by enjoynz. Powered by Blogger.