Header Ads

লাগাতার আন্দোলনের জের; পার্শ্ব শিক্ষকদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নিচ্ছে রাজ্য সরকার।

নজরবন্দি ব্যুরো: টানা ১৯ দিন ধরে চলছে আজ এর পার্শ্ব শিক্ষকদের ধরনা অনশন। আন্দোলন চলার সময় এক পার্শ্ব শিক্ষিকার মৃত্যু পর্যন্ত ঘটেছে। কিন্তু এটেও টনক নড়েনি রাজ্য সরকারের। উল্টে রাজ্য সরকার আন্দোলনরত শিক্ষকদের বিরুদ্ধে কড়া ব্যবস্থা নিতে চলেছে। এই বিষয়ে রাজ্য শিক্ষা দপ্তর আন্দোলনরত শিক্ষকদের বিরুদ্ধে শোকজ এর সিদ্ধান্ত নিয়েছে। রাজ্য শিক্ষা মন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায় আগেই বলেছিলেন স্কুলে অনুপস্থিত থেকে আন্দোলন করলে আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা নেওয়া হবে।
এবার রাজ্য শিক্ষা দপ্তর আন্দোলনরত শিক্ষকদের হাতে শোকজের চিঠি ধরাতে চলেছে। এই শোকজের প্রেক্ষিতে রাজ্য সরকারের বক্তব্য স্পষ্ট। রাজ্যে প্রাথমিক এবং উচ্চপ্রাথমিকে কর্মরত পার্শ্ব শিক্ষকেরা স্কুলে অনুপস্থিত থাকার ফলে পড়ুয়াদের পঠন পাঠন ব্যাহত হচ্ছে। আর তাই শোকজের সিদ্ধান্ত নিয়েছে রাজ্যের শিক্ষা দপ্তর। ইতিমধ্যে রাজ্য সরকারের তরফ থেকে ডি আই দের কাছে সার্কুলার চলে গিয়েছে। সার্কুলারে বলা হয়েছে, গত ১১ থেকে ২২ শে নভেম্বর পর্যন্ত যেসব পার্শ্বশিক্ষকেরা অগ্রিম না জানিয়ে কিংবা বিনা অনুমতিতে স্কুলে অনুপস্থিত রয়েছেন সংশ্লিষ্ট সেই সকল পার্শ্বশিক্ষকদের শোকজ চিঠি দিতে হবে। সার্কুলারে এও বলা হয়েছে,শোকজের জবাব সন্তোষজনক না হলে সংশ্লিষ্ট সেই সকল পার্শ্বশিক্ষকদের তালিকা বিকাশ ভবনে পাঠিয়ে দেওয়া হবে।
এদিকে আন্দোলনরত পার্শ্ব শিক্ষকেরা রয়েছেন অনড় অবস্থানে। টানা ধর্না ও অনশনরত পার্শ্ব আন্দোলনকারী শিক্ষকরা পাল্টা হুমকি দিয়েছে। পার্শ্ব শিক্ষক ঐক্য মঞ্চের নেতা ভগীরথ ঘোষ, জানিয়েছেন,কলকাতা হাইকোর্টের নির্দেশে বিকাশ ভবনের সামনে তারা ধরনা ও অনশনে বসেছেন। তাই তারা প্রয়োজন মনে করলে পুনরায় কলকাতা হাইকোর্টের দ্বারস্থ হবেন। তিনি এও জানিয়েছেন, রাজ্য শিক্ষা দপ্তরের আধিকারিক এবং জেলা শিক্ষা দপ্তরের আধিকারিকদের জানিয়েই পার্শ্ব শিক্ষকেরা স্কুল বয়কটের ডাক দিয়েছে।সরকার ষড়যন্ত্র করে আন্দোলন ভেস্তে দিতে চাইছে। এর ফলে আমাদের আন্দোলন আরো শক্তিশালী হয়ে উঠবে।
Loading...

No comments

Theme images by enjoynz. Powered by Blogger.