Header Ads

শেষ ইচ্ছা জানালো না নির্ভয়ার ৪ ধর্ষক। কেন?

নজরবন্দি ব্যুরো: নির্বিকার থেকেই  কি ফের ফাঁসি পিছনোর কি ছক কষছে নির্ভয়ার চার আসামি? আগামী ১লা ফেব্রুয়ারি ভোর ছটায় ফাঁসির দড়ি গলায় পরানো হবে চার দন্ডিতের। তিহার জেলে শুরু হয়ে গিয়েছে তার প্রস্তুতি। কিন্তু কেন নির্বিচার দোষী? ফাঁসির আগে চার আসামীর কাছ থেকে তাদের শেষ ইচ্ছার কথা জানতে চেয়েছিলেন জেল কর্তৃপক্ষ।
কিন্তু চারজনেই কোন প্রশ্নের উত্তর দেয়নি। কোনো প্রশ্নের উত্তর দেওয়ার ইচ্ছা তাদের মধ্যে নেই,আচরণে কোনো হেলদোলও লক্ষ্য করা যাচ্ছে না। আইনের ফাঁককে কাজে লাগিয়ে ফের গোপনে ফাঁসি পিছোনোর প্রস্তুতি নিচ্ছে তারা। তাদের কাছে জানতে চাওয়া হয়েছিল পরিবারের কার সঙ্গে শেষবারের মতো দেখা করতে চায় তারা, কিন্তু কেউই উত্তর দেয়নি। তাদের আচরণ দেখে তিহার জেল কর্তৃপক্ষের অনুমান ১লা ফেব্রুয়ারি তাদের ফাসি হবে না। এ বিষয়ে হয়তো তারা নিশ্চিত। ২২ শে জানুয়ারি প্রথম ফাঁসির দিন ঘোষণা হয়েছিল কিন্তু দোষীরা আলাদা আলাদা করে প্রথমে রায় সংশোধনের আর্জি, তারপরে ফের রাষ্টপতির কাছে প্রাণভিক্ষার কৌশল নেওয়ায় তা পিছিয়ে যায়।১লা ফেব্রুয়ারি আবার নতুন দিন ধার্য করা হয়। কিন্তু সেইদিন ও যে ফাঁসি হবেই তা কেউ জোর দিয়ে বলতে পারছে না।
বিনয় শর্মা ও মুকেশ কুমারের রায় সংশোধনের আর্জি খারিজ হলেও পাবেন গুপ্তা ও অক্ষয় কুমার সিংহ এখনো সেই আর্জি জানানোর সুযোগ রয়ে গিয়েছে। যেহেতু অপরাধ চারজনে একসাথে করেছে তাই তাদের একসঙ্গে ফাঁসি দিতে হবে। ফলে যদি একজনের আবেদন বিচারাধীন থাকে তাহলে বাকি তিনজনের ফাঁসি আটকে যাবে। আইন অনুযায়ী শেষ পর্যন্ত সকলের প্রাণভিক্ষার আবেদন খারিজ হলেও, আবেদন খারিজ ও ফাঁসির মধ্যে অন্তত ১৪ দিনের ব্যবধান থাকতে হবে। ফলে ১লা ফেব্রুয়ারি ফাঁসি হবে কিনা তা নিয়ে যথেষ্ট সংশয় রয়েছে।
Loading...

No comments

Theme images by lishenjun. Powered by Blogger.