Header Ads

করোনার জেরে রক্তের আকাল দেখা দিতে পারে ব্লাড ব্যাঙ্কগুলিতে, আশঙ্কায় আধিকারিকরা

নজরবন্দি ব্যুরোঃ করোনায় এবার বিপাকে রাজ্যের ব্লাড ব্যাঙ্কগুলি । ফলে বিপাকে পরতে পারে অসুস্থ ব্যক্তিরা। ব্লাড ব্যাঙ্ক কর্তৃপক্ষের আশঙ্কা প্রয়োজনে সাপ্লাই দেওয়া যাবে না রক্ত। করোনা জেরে রক্ত আসছে না ব্লাড ব্যাংকগুলিতে। ফলে ব্লাড জোগান দেওয়ার ক্ষেত্রে দেখা দিতে পারে সমস্যা। রাজ্যের বিভিন্ন রাজনৈতীক দল্ এবং সেচ্ছাসেবক সংস্থা গুলি যে সমস্ত রক্তদান শিবির করে থাকে মূলত সেখান থেকেই ব্লাড ব্যাঙ্কগুলিতে রক্ত আসে। কিন্তু গোটা রাজ্য লকডাইনের মধ্যে দিয়ে যাওয়ায় বন্ধ আছে সমস্ত কর্মসূচী।
ফলত ব্লাড ব্যাঙ্ক গুলি থেকে প্রয়োজনে খালি হাতেই ফিরতে হতে পারে রাজ্যবাসীকে। ব্লাড ব্যাঙ্ক কর্তৃপক্ষ তরফে জানানো হয়েছে, প্রথমে ২৭ মার্চ পর্যন্ত রাজ্যকে লকডাউন করার সিদ্ধান্ত নিয়েছিল সরকার। পরবর্তি সময়ে প্রধান্মন্ত্রি নরেন্দ্র মোদী সেই সময় সীমাকে বারিয়ে ২১ দিন অর্থাৎ ১৪ এপ্রিল করেদেন। এমন অবস্থায় কোন মতেই রক্তদান শিবির হওয়ার সম্ভাবনা নেই। যার ফলে রক্তের আকাল হতে পারে ব্লাড ব্যাঙ্কগুলিতে। লকডাউন উঠে গেলে যদি রক্তদান শিবির আয়োজিত হয় তাহলে কিছু সমস্যা কমতে পারে বলে মনে করছেন ব্লাড ব্যাঙ্ক কর্তৃপক্ষরা।
তাও একটা সংশয়ের জায়গা রয়েই যাচ্ছে। কারণ করোনা সংক্রমণের জেরে গোটা বিশ্ব জুড়ে যে অবস্থা তৈরী হয়েছে সেই দিক থেকে দেখ গেলে কত দিনে পরিস্থিতি সাধারন হবে তা বলা যাচ্ছে না। ফলে লকডাউন উঠে যাওয়ার পরেই সংস্থা গুলি বা রাজনৈতীক দলগুলি রক্তদান শিবির করতে পারবে তা বলা সম্ভব নয় এই মুহুর্তে। ব্লাড ব্যাংকগুলির আধিকারিকরা জানিয়েছেন, এমন অনেক রোগী আছেন যারে প্রতি নিয়ত রক্তের প্রয়োজন হয়, যেমন থ্যালাসেমিয়ার রোগী। তাঁদের রক্ত দেওয়ার ক্ষেত্রে আসুবিধা হবে। সেই সব ক্ষেত্রে একটা সমস্যার জায়গা রয়েই যাচ্ছে।
Loading...

No comments

Theme images by lishenjun. Powered by Blogger.