Header Ads

করোনার জেরে অনির্দিষ্টকালের জন্য স্থগিত এনপিআর ও জনগণনা!

নজরবন্দি ব্যুরো: করোনা ভাইরাসে আতঙ্কিত গোটা ভারত। ভারতে মৃত্যু বেড়ে হল ১১। এদিন তামিলনাড়ুর মাদুরাইতে এই ভাইরাসে ১ ব্যক্তির মৃত্যু হয়েছে। ৫৪ বছরের এই ব্যক্তির কোনও বিদেশ ভ্রমণ করে ফেরেননি। ২৩ মার্চ থেকে তিনি হাসপাতালে ভরতি হয়ে ছিলেন। বুধবার সকাল মৃত্যু হয় তাঁর। গোটা দেশে এই মুহূর্তে সংখ্যা বেড়ে ৫২৩ ।
এই ভাইরাস থেকে দেশের মানুষকে বাঁচাতে ১৪ ই এপ্রিল পর্যন্ত লকডাউন ঘোষণা করেন প্রধানমন্ত্রী। গতকাল জাতির উদ্দেশে ভাষণে নরেন্দ্র মোদী বলেন,''প্রধানমন্ত্রী থেকে সাধারণ নাগরিক তখনই বাঁচতে পারবেন, যখন আমরা ঘরের ভিতরে থাকব। ভাইরাসের সংক্রমণ আটকাতে হবে। ভাঙতে হবে সংক্রমণের শৃঙ্খল। ভারত এমন ধাপে রয়েছে, যেখানে আমাদের পদক্ষেপ ঠিক করে দেবে, কতটা ক্ষতি এড়াতে পারি আমরা। প্রতিটি পদে ধৈর্য ধরতে হবে। লকডাউনে ঘর থেকে না বেরানোর সংকল্প নিন। প্রাণ থাকলে দুনিয়া থাকবে।'' এবার তিনি ঘোষণা করেছেন আগামী ১৪ই এপ্রিল পর্যন্ত সারা দেশে লকডাউন থাকবে।

করোনার জেরেই পিছল জনসংখ্যাপঞ্জি বা এনপিআর চালু করার প্রক্রিয়া। পিছিয়ে যাচ্ছে প্রথম দফার জনগণণা (২০২১) প্রক্রিয়াও। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রক সূত্রে খবর, পরবর্তী নির্দেশ না আসা পর্যন্ত স্থগিত থাকছে এনপিআর ও সেনসাসের কাজ।

এনপিআর এবং সেনসাসের কাজ চলার কথা ছিল ১ এপ্রিল থেকে ৩১ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত। কেন্দ্রের সরকার আগেই সিদ্ধান্ত নিয়েছিল প্ৰথম দফায় কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলগুলিতে তথ্য সংগ্রহ করা হবে। কিন্তু গতকাল প্রধানমন্ত্রী ঘোষণা করেন করোনার সংক্রমণ আটকাতে ১৪ এপ্রিল পর্যন্ত সারা দেশে লকডাউন থাকবে। আর এর ফলে পিছিয়ে যাচ্ছে এনপিআর-এর কাজ।

Loading...

No comments

Theme images by lishenjun. Powered by Blogger.