Header Ads

এমন চিত্র বিরল; লকডাউনে দোকান বন্ধ করতে গেলে পুলিশকে হেনস্থা। গ্রেপ্তার শাসক দলের নেতা

নজরবন্দি ব্যুরো: করোনা আতঙ্কে কাঁপছে গোটা ভারত। তার ছায়া এই রাজ্যেও দেখা গিয়েছে। এই ভাইরাস থেকে দেশের মানুষকে বাঁচাতে ১৪ ই এপ্রিল পর্যন্ত লকডাউন ঘোষণা করেন প্রধানমন্ত্রী। গতকাল জাতির উদ্দেশে ভাষণে নরেন্দ্র মোদী বলেন,''প্রধানমন্ত্রী থেকে সাধারণ নাগরিক তখনই বাঁচতে পারবেন, যখন আমরা ঘরের ভিতরে থাকব। ভাইরাসের সংক্রমণ আটকাতে হবে। ভাঙতে হবে সংক্রমণের শৃঙ্খল। ভারত এমন ধাপে রয়েছে, যেখানে আমাদের পদক্ষেপ ঠিক করে দেবে, কতটা ক্ষতি এড়াতে পারি আমরা। প্রতিটি পদে ধৈর্য ধরতে হবে। লকডাউনে ঘর থেকে না বেরানোর সংকল্প নিন। প্রাণ থাকলে দুনিয়া থাকবে।'' এবার তিনি ঘোষণা করেছেন আগামী ১৪ই এপ্রিল পর্যন্ত সারা দেশে লকডাউন থাকবে।

এর পাশাপাশি করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ রুখতে সোমবার বিকেল থেকে রাজ্যে লকডাউন ঘোষণা করেছে সরকার। ১৪৪ ধারা জারি হয়েছে সর্বত্র। কিন্তু সরকারি ফরমান উপেক্ষা করে মিষ্টির দোকান খোলা রাখা হল কোন্নগরে। এমনটাই অভিযোগ। পুলিশ দোকান বন্ধ করতে গেলে স্থানীয় কাউন্সিলর বাধা দেন। যার জেরে গ্রেপ্তার করা হল ওই কাউন্সিলর।

এই প্রসঙ্গে জানা গিয়েছে, কোন্নগর পুরসভার তৃণমূলের কাউন্সিলর তন্ময় দেবের বিরুদ্ধে পুলিশকে হেনস্থা করার অভিযোগ ওঠে। লকডাউন উপেক্ষা করে কোন্নগরে দেশপ্রাণ মিষ্টান্ন ভাণ্ডার দোকান খোলা রাখা হয়। সেই খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে যায়। উত্তরপাড়া থানার পুলিশ সেই মিষ্টির দোকান বন্ধ করতে বলে। কিন্তু তন্ময় দেব বাধা দেন বলে অভিযোগ। পুলিশকে হেনস্তাও করেন বলে জানা গিয়েছে। এর পরে ওই তৃণমূল কাউন্সিলরকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। 
Loading...

No comments

Theme images by lishenjun. Powered by Blogger.